আপনি কি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে চান? ফাইবার ও আপওয়ার্ক সম্মন্ধে জানতে চান তাহলে বিস্তারিত দেখুন

বর্তমানে বাংলাদেশে ফ্রিল্যান্সিং অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি পেশা। যে কেউই ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলো থেকে বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে বেশ ভাল পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারে। বিশ্বজুড়ে হাজারো ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর মধ্যে আপওয়ার্ক এবং ফাইবার সবথেকে জনপ্রিয়, এবং অন্যান মার্কেটপ্লেস এর তুলনায় এখানে কাজের পরিধিও অনেক বেশি। তাই ফাইবার ও আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেস সম্মন্ধে জানতে বিস্তারিত দেখুন।

Contents

ফ্রিল্যান্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং মূলত এমন একটি পেশা যেখানে আপনি নিজের কর্মদক্ষতা ও মেধা এবং অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে অনলাইনের মাধ্যমে অন্যর হয়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে দেওয়া। এই কাজটি আপনি নির্দিষ্ট কোন কোম্পানি অথবা মানুষের হয়ে অথবা আপনি আপনার স্বাধীন মতো কাজ করতে পারবেন। ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে আপনার ক্লায়েন্টের সাথে যোগাযোগের দক্ষতা এবং সাধারন ইংরেজি জানতে হবে।

ফাইবার কি? ফাইবার এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?

ফাইবার কি:

ফ্রীল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর মধ্যে অন্যতম হল ফাইবার। এখানে গ্রাহক বা বায়াররা কোন সার্ভিসের খোঁজ করলে গিগ(Gig) প্রদর্শিত হয় এবং সেগুলো পছন্দ হলে গ্রাহকরা বা বায়াররা সেই সেলারের সার্ভিস বা পণ্য ক্রয় করে। এখন আপনাদের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে গিগ(Gig) কি? গিগ(Gig) হচ্ছে কোন সেলার তার পণ্য বা সার্ভিসগুলো সম্মন্ধে বর্ণনা দিয়ে যে উপায়ে সাজিয়ে রাখে। বায়ার বা গ্রাহকরা এখানে কাজশেষে রেটিংস বা রিভিউ দিতে পারে নিজের ইচ্ছেমত। এবং ফাইবারে প্রতিদিন কয়েক মিলিয়ন ইউনিক ভিজিটরের আগমন ঘটে।

ফাইবার এ যে যে কাজগুলো পাওয়া যায়:

ফাইবার মার্কেটপ্লেসে বিশেষ করে আপনি যে বিষয়ে দক্ষ বা অভিজ্ঞতা আছে আপনি সেসব কাজ ই করতে পারবেন। ফাইবারে কাজ করার জন্য বিভিন্ন রকমের ক্যাটাগরি বিদ্যমান রয়েছে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক, ফাইবারে কি কি রকমের কাজ পাওয়া যায় –

  1. ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট
  2. ট্র্যান্সক্রিপশন
  3. ভিডিও এডিটিং
  4. আর্টিকেল বা কন্টেন্ট রাইটিং
  5. গ্রাফিক্স ডিজাইন
  6. এসইও(SEO) অপটিমাইজেশন
  7. ডিজিটাল মার্কেটিং
  8. প্রোগ্রামিং ,ইত্যাদি ।

আপওয়ার্ক কি? আপওয়ার্ক এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?

আপওয়ার্ক কি:

আপওয়ার্ক হচ্ছে elence ও Odesk থেকে গঠিত জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্ম বা মার্কেটপ্লেস। আপওয়ার্কে দুই ধরনের কাজ পাওয়া যায়।একটি হচ্ছে “ফিক্সড প্রাইজ কাজ” এবং আরেকটি হচ্ছে “ঘন্টা চুক্তি কাজ”। আপওয়ার্কে ক্লায়েন্টরা সাধারণত যে কাজগুলি করতে চান তা পোস্ট করেন, তারপরে যে কাজগুলিতে ফ্রিল্যান্সিং  কাজ করতে চান সেগুলিতে বিড করতে হয়। বায়ার থেকে বিডের মাধ্যমে কাজ পেলে সম্পূর্ণ কাজ করার পর সেই কাজ জমা দিতে হয়। কাজ করার পর আপনাকে যেই অর্থ প্রদান করা হবে সেখান থেকে আপওয়ার্কে ২০% জমা হবে এবং বাকি টাকা আপনি পেয়ে যাবেন।

আপওয়ার্ক এ যে যে কাজগুলো পাওয়া যায়:

ফ্রিল্যান্সিং এর উপর ভিত্তি করে আপওয়ার্ক এ প্রায় সব ধরনের কাজই পাওয়া যায়। আপনার দক্ষতা এবং সৃজনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে সব ধরনের কাজই করতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক, ফাইবারে কি কি রকমের কাজ পাওয়া যায়-

  1.     ফটোগ্রাফি এবং ভিডিও প্রোডাকশন
  2.     ওয়েব এবং গ্রাফিক ডিজাইন
  3.     প্রোগ্রামিং এবং সফটওয়্যার ডেভলপমেন্ট
  4.     ডেভেলপমেন্ট এবং আইটি
  5.     ডিজাইন এবং ক্রিয়েটিভ
  6.     ফিন্যান্স এবং একাউন্টিং
  7.     এডমিন এবং কাস্টোমার সাপোর্ট
  8.   ইঞ্জিনিয়ারিং এবং আর্কিটেকচার
  9.   সেলস এবং মার্কেটিং
  10. রাইটিং এবং ট্রান্সলেশন

কিভাবে নিজেকে ফ্রিল্যান্সিংয়ে যোগ্য করে তুলবেন ? 

আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হতে চান বা ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারে নিজেকে যোগ্য করে তুলতে চান তাহলে আপনাকে বেশ কিছু জিনিস জানতে হবে।

  1. যেকোন কাজ করার জন্য প্রতিটি মানুষের একটি সাধারণ জ্ঞান বা যোগ্যতা থাকার পাশাপাশি ইন্টারনেট সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে এবং একটু কুইক লার্নার হতে হবে।
  2. ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে অবশ্যই নিজে নির্দিষ্ট লক্ষ্য স্থির করুন।
  3. কোন সাইট বা প্লাটফর্ম থেকে ফ্রিল্যান্সিং করবেন সেটা সম্পর্কে ভালভাবে জেনে নিতে হবে।
  4. ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্ম নির্বাচন করার পর সেই প্লাটফর্মে নিজের একটি প্রোফাইল বা গিগ তৈরি করতে হবে।

এই কোর্সটি কিভাবে করবেন?

ফ্রী মাধ্যম: আজকাল আপনি গুগল বা ইউটিউবে শিখার জন্য অসংখ্য টিউটোরিয়াল পাবেন।  আপনি যদি সঠিক কীওয়ার্ড দিয়ে খুঁজেন তাহলে কাঙ্খিত টিউটোরিয়াল পাবেন। এই বিষয় গুলো যথেষ্ট সময় সাপেক্ষ, আপনাকে সঠিক টিউটোরিয়াল বেছে নিতে হবে।  হয়তো সব কিছু পাবেন ও না।  তবে কিছুটা হলেও শিখতে পারবেন।

পেইড মাধ্যম: আজকাল ভালো কিছু শিখতে গেলে আপনাকে টাকা খরচ করে শিখতে হবে, তাই সঠিক টিউটোরিয়াল, সঠিক গাইডলাইন পেতে আপনাকে সঠিক প্রতিষ্ঠান বেঁচে নিতে হবে।  তাই আমাদের দেশে এক মাত্র সঠিক গাইডলাইন পেতে আপনি bongiyo.com যাবেন। আশা করি আপনার টাকা ও সময় বিফলে যাবে না। এখানে আপনি বাংলায় শিখতে পারবেন। আর বাইরের সাইট হলো udemy.com  যে কোনো স্কিল শেখার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো সঠিক দিকনির্দেশনা। আর সেই সঠিক দিকনির্দেশনাই আপনাকে পৌঁছে দেবে আপনার কাঙ্খিত লক্ষ্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *